1. multicare.net@gmail.com : দৈনিক জামালপুরসংবাদ ২৪ :
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০:১৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত পিংনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উৎযাপন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, বিএনপি নেতা ছাতকের সৈয়দ তিতুমীর আর নেই শিল্পকলা প্রতিযোগিতায় আবৃতিতে জেলার শ্রেষ্ঠ ছাতকের হৃদি তরফদার ছাতকে নোয়ারাই ইউনিয়নের লক্ষিবাউর এলাকায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি সহযোগিতা কামনা উত্তর খুরমা ইউনিয়নের বন্যা আশ্রয় কেন্দ্রে ইউপি চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদের ত্রাণ বিতরণ কোম্পানিগঞ্জে বন্যা দুর্গতদের মধ্যে থানা পুলিশের ত্রাণ বিতরণ গোদাগাড়ীতে ট্রাকের ধাক্কায় এক যুবক নিহত । বন্যায় ভেঙ্গে যাওয়া ছাতক-সুনামগঞ্জ সড়কের আন্দারীগাঁও এলাকা পরিদর্শনে উপজেলা চেয়ারম্যান ছাতকে বিভিন্ন ইউনিয়নে বানবাসী মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন—মাহির চৌধুরী

সরিষাবাড়ীতে পাওনা টাকা না দেওয়ার বাহানায় ,হাসপাতালে ভর্তি থানায় মিথ্যা অভিযোগ। ।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৬৪৯ বার পড়া হয়েছে
  1. নিজস্ব প্রতিবেদক :

জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়নের গেন্দার পাড়া গ্রামের মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে মাংস ব্যবসায়ী বাবলু মিয়া ওরফে কালু মিয়ার বিরুদ্ধে পাওনা টাকা না দেওয়ার বাহানায় হাসপাতালে ভর্তি ও থানায় মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছেন বলে দাবি করেছেন একই ইউনিয়নের ডুরিয়ারভিটা গ্রামের মৃত: সবুর খন্দকারে ছেলে ফটিক মিয়া ।

স্থানীয় ও ঘটনা সুত্রে জানা যায় গত-১২/৫/২০২৩ ইং তারিখ শুক্রবার সকালে  ফটিক মিয়ার কাছ থেকে ৮৫,০০০/ ( পঁচাশি হাজার)  টাকা মুল্যের একটি ষাড় গরু ক্রয় করেন মাংস ব্যবসায়ী  বাবলু মিয়া ওরফে কালু কসাই। ৪০০০/ চার হাজার টাকা  নগদ বায়না দিয়ে গরু নিয়ে  আসে কালু কসাই। যেহেতু  কালু কসাই দীর্ঘ দিনের পুরাত ব্যবসায়ী বিকেলে ৮১০০০/ একাশি হাজার টাকা পরিশোধ  করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন কালু কসাই।

বিকেল পর্যন্ত অপেক্ষা  করে  গরুর মালিক  ফটিক মিয়া। কালু কসাই এর  কোন দেখা না পেয়ে ১৩/৫/২০২৩ ইং তারিখে  সকাল আনুমানিক  ১১:৩০ দিকে কালু মিয়ার দোকানে টাকা চাইতে যায় ফটিক মিয়া।দীর্ঘ  সময় বসিয়ে  রেখে  ১১০০০/ এগার হাজার টাকা দিয়ে  বলে বাকি টাকা ৭ দিনের  একযুগে পরিশোধ করার  প্রতিশ্রুতি করে কালু কসাই। সহজ মনে চলে যায় গরুর  মালিক  ফটিক মিয়া।

কালু কসাই  এর   কথা মতো  ৭ দিন পর দোকানে  টাকা চাইতে আসে  গরুর  মালিক  ফটিক মিয়া। দীর্ঘ  সময় পরে  নানা অজুহাতে  অনেকের টাকা বাকী আছে তুলে দিয়ে  দিবো বলে সেই দিন  ৫০০০/ হাজার টাকা হাতে দিয়ে অনুরোধ করে কালু কসাই। সেবার ও ফিরে  যায় গরুর মালিক  পাওনা দার ফটিক মিয়া। পরের তারিখে  ১০,০০০/ দশ হাজার তার পর ২০ বিশ হাজার, তার ৬ হাজার,৮ আট হাজার, ৫ হাজার, ২ হাজার , ১ একহাজার ৫শত টাকা এবং সর্বশেষ  গত রবিবার ১০/৯/২০২৩ ইং তারিখে ২০০০/দুই হাজার টাকা  পরিশোধ করে  কালু কসাই এ নিয়ে ৭৪৫০০/ চুয়াত্তর হাজার পাঁচ শত টাকা পরিশোধ করে কালু মিয়া।   বাকী  টাকা  একদিন পরে দিবে বলে কথা দেয়।

মঙ্গলবার ১২সেপ্টেম্বর আনুমানিক  ১২ টার দিকে  যথারিতি  কালু কসাই এর  কথা  মতো টাকা চাইতে যায় গরুর  মালিক  ফটিক মিয়া। দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থেকে  বাকী টাকা  চাইলে  উল্টো ঝারিমারে কালু কসাই, তুই কিসের  টাকা পাশ,  হিসাব  করলে আমি তোমার কাছে টাকা পাবো।,কালু কসাই এর  কথায় মাথায়  জেন আকাশ ভেঙে পড়ে  ফটিক মিয়ার একেতো দীর্ঘ সময় টাকার পিছনে  ঘুরে ঘুরে  হয়রান তার পর উল্টো যখন  টাকা দাবি করে কালু কসাই  তখন উত্তেজিত হয় ফটিক, উত্তেজিত  হয় কালু কসাই ও দুই  জনই উত্তেজিত হয়ে গেলে  ঝগড়া  থামাতে  চেষ্টা করে  কালু কসাই এর  সহযোগী, নায়েব আলী ঠান্ডা, আসর আলী, পুরাতন  ঘাটের ড্রাইভার সোহেল  সহ অনেকে।

ঘটনাটি তারাকান্দি পুলিশ  তদন্ত কেন্দ্রের সামনেই  তাই লোকজনের কথা কাটাকাটির শব্দে তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই   সুলতান  কালু কসাই এর  দোকানে  আসলে কালু কসাই  অভিযোগ  করে আমার পকেট থেকে  টাকা নিয়েছে ফটিক মিয়া  তাৎক্ষণিক  এস আই সুলতান  গরুর মালিক পাওনাদার   ফটিক মিয়ার  দেহ তল্লাশি করে কোন কিছু  না পেয়ে তাঁকে  চলে যেতে বলে।ফটিক মিয়া বাড়ীতে চলে। পরে জানতে  পারে কালু সরিষাবাড়ি  হাস পাতালে ভর্তি হয়েছে। খবর পেয়ে বিকালে ফটিক ও তার স্ত্রী  কালু মিয়াকে দেখতে সরিষাবাড়ি  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ গেলে ফটিক মিয়া  ও তার স্ত্রীকে কালু মিয়ার পরিবারের  লোকজন চড়াও  হয়ে মারতে গেলে  ফটিক মিয়া ও তার স্ত্রী  হাসপাতাল থেকে ফিরে  আসে।

অভিযুক্ত  গরুর মালিক ফটিক মিয়া  জানান একে তো আমার টাকা, পয়সা বানিয়ে  দিয়েছে  যে টাকা কোন কাজে আসে নাই, তারপর যখন  বলছে উল্টো আমার  কাছে  টাকা পাবে আমি উত্তেজিত হয়ে  কালুকে ধরতে গিয়ে ছিলাম কিন্তু  আঘাত  করিনি,  কিভাবে   তার ঠোঁট ফেটেছে  জানিনা। আসলে এটা  হলো আমার টাকাগুলো  না দেওয়ার বাহানা। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তি হীন অভিযোগ করেছে।   যাহাতে আমার  পাওনা টাকা গুলো  না দিতে হয়।

আমি পাওনাদার তার অনেক  সাক্ষী  আছে। অনেকের কাছে থেকে  সময় নিয়েছে।  যাহার অন্যতম গেন্দার পারা রুবেল মেম্বার। তিনি আমার পাওনা টাকার বিষয়ে অনেক  বার সময় নিয়েছে অনেক  কিছুই তার  জানা।

বিষয়ে  জানতে  সরিষাবাড়ি  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ বাবলু মিয়া  ওরফে  কালু মিয়ার   সাথে কথা  বলতে  গেলে পরিবারের  লোকজন  জানান টাকা পাবে টাকা নিবে, গায়ে হাত  দিবে কেন।  বাবলু মিয়া  ওরফে কালু জানান গত বরিবার ২০০০/ হাজার টাকা  দিয়েছি এবং বলছি হিসাব করে যদি তুমি টাকা পাও আমি দিবো। আর যদি আমি পাই তাহলে  আমাকে দিবা।  এর মধ্যেই  আমাকে শাটের কলার  ধরে  ঘুষি মেরে রক্তাক্ত করেছে  আমি এর সঠিক  বিচার চাই।

গরুর মালিক ফটিক মিয়া বাবলু মিয়া  ওরফে কালু কসাই এর  কাছে  টাকা পাবে এ বিষয়ে  অনেক অবগত আছে।  ফটিকে পাওনা টাকার বিষয়ে  গেন্দার পাড়া গ্রামের সাবেক মেম্বার  আসাদুজ্জামান রুবেল ও  অবগত রয়েছে  এবং রুবেল মেম্বার এর নিজের হাতে নিয়ে  পৌঁছে  দিয়ে টাকা। থানায়  মিথ্যা  বানোয়াট ভিত্তি হীন অভিযোগ করে নাটক সাজিয়ে  পাওনা টাকা  না দেওয়ার বাহা করছে  বলে জানিয়েছেন  অনেকে । নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছে  কালু কসাই  পুরাতন  ব্যবসায়ী কিন্তু ফটিকের সাথে  যে আচরণ  করছে  বেচারার টাকা একে বারে পয়সা করে দিয়েছে।

অভিযোগ  এর বিষয়ে সরিষাবাড়ি  থানার অফিসার ইনচার্জ  (ওসি) মহব্বত কবীর এর কাছে  জানতে চাইলে  তিনি  জানান  বাবলু মিয়া  ওরফে কালু কসাই এর স্ত্রী  মেরীর একটি লিখিত  অভিযোগ  পেয়েছি,।অভিযোগ মোতাবেক  তদন্ত  করে  দোষীদের বিরুদ্ধে  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে জানিয়েছেন।

পাওনা টাকা  নিয়ে হাতাহাতির ঘটনার বিষয়ে  ২নং পোগলদিঘা ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান  ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ  সরিষাবাড়ি উপজেলা শাখার  সাংগঠনিক সম্পাদক, তারাকান্দি  ট্রাক ট্যাংস্ক লড়ি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম মানিক জানান বিষয়টি  আমি জানতে  পেরেছি  এবং বিষয়টি  বসে সমাধান করবেন  বলে জানিয়েছেন।

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
Theme Customized BY LatestNews