1. multicare.net@gmail.com : দৈনিক জামালপুরসংবাদ ২৪ :
বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০২:০২ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নরসিংদীতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুলি ও টেটা বৃদ্ধ হয়ে পুলিশ সহ ১০জন আহত সরিষাবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে স্ত্রীর মৃত্যুসহ ২জনের মরদেহ উদ্ধার সরিষাবাড়ীতে সংখ্যালঘুর বাড়ীতে হামলা-ভাংচুর, মারপিট।। থানায় অভিযোগ.. নরসিংদীতে আগ্নেয়াস্ত তৈরির কারখানার সন্ধান গ্রেপ্তার এক নরসিংদী জেলায় প্রতারক চক্রের নিকট জিম্মি চামড়ার মালিক মধুপুরে ভিজিএফ এর চাল বিতরণে বাঁধা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে লাঞ্চিত দেশবাসীকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন গাজীপুর মিডিয়া ক্লাব আহবায়ক – তারেক রহমান জাহাঙ্গীর নরসিংদীর শিবপুরে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ নরসিংদীর শিবপুরে ঈদ সামগ্রীর বিতরণ করলেন আলহাজ্ব সাখাওয়াৎ হোসেন সুমন রিকুইজিশনের নিয়ম মেনেই শিক্ষার্থীদের গাড়ি দেওয়া হয়েছে: বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন

নির্যাতিতা গার্মেন্টস কর্মী বিচারাধীন মামলার নিস্পওি চায়

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ১০ মে, ২০২৩
  • ২২৯ বার পড়া হয়েছে

 

মাহবুব জিলানী গাজীপুর থেকে :

গাজিপুর থেকে গামের্ন্টসে চাকুরী করা আন্জুরা (২৬) সাথে পরিচয় হয় ইব্রাহিমের (২৮)। ধীরে ধীরে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে । এরই ধারাবাহীকতায় ০৪/০৩/২০১৩ইং ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে উভয়ের সম্মতিতে বিবাহ করেন ।তখন তাদের সংসার ভালো ভাবেই চলছিলো। তাদের সংসার আলোকিত করে ০৬/০৩/২০১৬ ইং তারিখে জন্মগ্রহন করে ফুটফুটে কন্যা সন্তান সানিয়া আফরিন লিজা ।কন্যা সন্তান জন্ম নেয়ার কিছুদিন পর থেকেই যৌতুকের জন্য চাপদিতে থাকে ইব্রাহিম ।নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সংসারের সুখের কথা চিন্তা করে আনজুরা তার পিতার কাছ থেকে নগদ তিন লক্ষ টাকা উভয় পরিবারের লোক জনের উপস্থিতিতে প্রদান করে ।তার আরো কিছুদিন যাওয়ার পর আরো দুই লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে আনজুরার স্বামী শারীরিক ও মানষিক নির্যাতন চালায়। এই নির্যাতনের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলছিলো । নির্যাতন থেকে রেহাই পেতে আনজুরা তার স্বামী ও স্বামীর পরিবারের লোক জন ইব্রাহিম এর পিতা আরফান আলি (৪১) , ইব্রাহিম এর মাতা মোছাঃ কামরুন্নাহার (৩৫) ইব্রাহিম এর ছোট ভাই মোস্তাফিজুর (২২)কে সাথে নিয়ে ০৬/০৩/২০২২ইং তার বাপের বাড়িতে বেড়াতে গেলে ইব্রাহিম যৌতুকের জন্য আনজুরাকে আবারো অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে এক পর্যায়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কিল-ঘুষি ও তলপেটে জোরে জোরে কয়েক টি লাথি মারে এবং ইব্রাহিম এর সাথে থাকা সবাই আনজুরার শরীরে আঘাত করে ও হত্য করার চেষ্টা করে ।ও তারা কন্না সন্তান কে সাথে নিয়া ঘটনারস্থল ত্যাগ করে। পরবর্তীতে ইব্রাহিম এর পরিবার নিজেদের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলা ফুলপুর উপজেলার উত্তর গোদারিয়া এলাকায় চলে যায় বলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানতে পারে আনজুরার পরিবার।পরর্বতীতে আরো জানতে পায় ইব্রাহিম আরো একটি বিয়ে করে সংসার করছে আনজুরার অনুমতি ছাড়া। আনজুরা শরীরের গুরুতর অবস্থা দেখে ইসলামপুর সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহন করে । উক্তঘটনার সাক্ষীগণের নাম ও চিকিৎসা ব্যবস্থার কাগজ পত্র দিয়ে বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল -১ জামালপুর । নালিশী মোকদ্দমা নং ১৪৫/২০২২।ধারা -২০০০সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী/২০০৩)এর ১১ (গ)/৩০ ধারা। উক্ত ঘটনার বিষয়ে প্রতিবেদক ইব্রাহিম কে মোবাইল ফোনে ফোনকরলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায় । আনজুরা বলেন বিজ্ঞ আদালতে বার বার ডেট এর পর ডেট পিছিয়ে যায় আমি একজন সামান্য বেতনের গার্মেন্টস কর্মী আমার জন্য চাকরি রেখে বার বার জামালপুর আদালতে যাওয়া কষ্ট সাধ্য ব্যাপার হয়েছে এমতা অবস্থায় মহামান্য আদালতের প্রতি আমার আকুল প্রার্থণা এই যে,আসামীগনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ধারায় গ্রফতারী পরোয়ানার আদেশ দিয়া পুলিশ কর্তৃক ধৃত করিয়া জেল হাজতে প্রেরন করিয়া দ্রুত মোকদ্দমার সু-বিচার করিতে প্রার্থণা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
Theme Customized BY LatestNews