1. multicare.net@gmail.com : দৈনিক জামালপুরসংবাদ ২৪ :
শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
নেপাল-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ আ্যওয়ার্ড ২০২৪ পদকে ভুষিত হলেন অধ্যাপক হরিদাস রায় ছাতকে মুক্তিরগাঁও সঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিদায় সংবর্ধনা রাত পোহালেই মণিপুরী সম্প্রদায়ের অভিভাবক সংগঠন “মসকস”র নির্বাচন দেশবাসীসহ গাজীপুরবাসীকে পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন গাসিক কাউন্সিলর খালেদুর রহমান রাসেল টঙ্গীতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য আনুষ্ঠানিক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করেন,,, গাসিক কাউন্সিলর খালেদুর রহমান রাসেল ৯ মাসে ৭ বার টাঙ্গাইল জেলায় শ্রেষ্ঠ অফিসার নির্বাচিত হলেন মোল্লা আজিজুর রহমান মান্নান ও মানিক সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য নির্বাচিত হলেন চরমহল্লা ইউনিয়নে বোকা নদীতে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবি এলাকাবাসীর পবিত্র ঈদুল আজহার অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পিংনা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ প্রমানিক   নরসিংদীর শিবপুর বিনা অনুমতিতে প্রতিবছরই গরুর হাট বসান রাখিল

১০ দিন পর ফেলে যাওয়া শিশুকে মা-বাবার কাছে হস্তান্তর

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ, ২০২৩
  • ২৩৯ বার পড়া হয়েছে

 

জামালপুর প্রতিনিধি

জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ফেলে যাওয়া শিশুটি ঠাই হয়েছে মায়ের বুকে। ১০ দিন পর প্রশাসনিক জটিলতা সেরে বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় সমাজসেবা অধিদপ্তর এবং জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে তার বাবা মাসহ স্বজনদের হস্তান্তর করেছেন।
গত ২৭ ফেব্রুয়ারি ২৮ দিন বয়সী এক কন্যা শিশুকে রেখে মা এবং নানী ওষুধের টাকা আনতে পাশের বেডের এক নারীর কাছে রেখে বাড়িতে যান। টাকা নিয়ে ফিরতে দেরি হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের বাচ্চার কাছে যেতে দেননি।
সন্তানকে ফিরে পেতে মা বাবা প্রশাসনে দ্বারস্থ হন।
এই নিয়ে জেলা প্রশাসকের সাথে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত শিশুটি এখন হাসপাতালটির শেখ রাসেল বিশেষায়িত নবজাতক সেবা কেন্দ্রে চিকিৎসকদের সেবায় রেখে ছিলেন।
বাবা-মার দাবির পর সমাজ সেবা অধিদপ্তর বুধবার শিশুটির বাবা মা পরিচয়দানকারীদের বাড়িতে গিয়ে এলাকার মানুষ ও জনপ্রতিনিধি সাথে কথা বলে তাদের পরিচয় নিশ্চিত হয়।
এরপর বৃহস্পতিবার দুপুর ১টায় জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের সমাজ সেবা কার্যালয় শিশুকে তার বাবা মার কাছে হস্তান্তর করা হয়।
শিশুটিকে বুকে জড়িয়ে তার মা রোকসানা আক্তার বলেন, আমি বাচ্চা রেখে ওষুধের টাকা আনতে বাড়িতে গিয়ে ফিরতে দেরি হওয়ায় আমাকে হাসপাতালে ডুকতে দেয়নি। ১০ দিন আমার বাচ্চা কাছে যেতে পারিনি। প্রশাসনের কাছে গিয়েও হতাশায় ছিলাম। ওরা বলেছে ডিএনএ টেস্ট করে বাচ্চা দিবে। সেটাও অনেক দিন লাগবে। মিডিয়া আমার পাশে ছিল বলেই আজ আমার বাচ্চাকে পেলাম।
শিশুর বাবা আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, আমি নারায়ণগঞ্জে একটি নেটজালের কোম্পানীতে কাজ করি। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে খবর দেখে চলে আসি। এরপর থেকে বাচ্চা পেতে অনেক চেষ্টা করেও কাজ হয়নি। আমার এই কষ্টের মাঝে বিভিন্ন টিভি পাশে দাড়িয়ে ছিল। আর এ জন্য দ্রুত সময়ে বাচ্চাকে পেলাম।
জামালপুর সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রাজু আহমেদ বলেন, বিভিন্ন সংবাতপত্রে প্রতিবেদন প্রচার হবার পর বিষয়টি নজরে আসে। আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে বাচ্চার মা বাবাকে সনাক্ত করে তাদের কাছে হস্তান্তর করলাম।
জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মাহফুজুর রহমান বলেন, ফেলে যাওয়া শিশুর মা বাবার পরিচয় নিশ্চিত হয়ে আজ তাদের কাছে হস্তান্তর করা হলো শিশুকে। শিশুর শারীরিক অবস্থা ভালো বলে তিনি জানান।
গত ২৭ ফেব্রুয়ারী বেলা ১২টা ৫ মিনিটে হাসপাতালের ৭নং ওয়ার্ডে ২৮ দিন বয়সী শিশু নিশিকে ওজন কম এবং শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি করায় রকিব রোকসানা দম্পতি। পরে গত ০১মার্চ ওই নিশিকে হাসপাতের ৪তলায় শিশু ওয়ার্ডের করিডোরে অপেক্ষামান রোগীর এক স্বজনের কাছে রেখে নিশির নানী বাড়িতে চলে যান। শিশুটির চিকিৎসার টাকা আনতে বাড়িতে গিয়ে ফিরতে দেরি হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মা এবং নানীকে বাচ্চার কাছে যেতে দেয়নি।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
Theme Customized BY LatestNews